Home জাতীয় মোবাইল অপারেটরদের রাতের বিশেষ ইন্টারনেট অফার বন্ধের নির্দেশ, ব্লু হোয়েল নিয়ে রুল

মোবাইল অপারেটরদের রাতের বিশেষ ইন্টারনেট অফার বন্ধের নির্দেশ, ব্লু হোয়েল নিয়ে রুল

220

রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত মোবাইল ফোন অপারেটররা যে বিশেষ ইন্টারনেট অফার দেন তা ছয় মাসের জন্য বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার (১৬ অক্টোবর) এ সংক্রান্ত দায়ের করা পৃথক রিট আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

এছাড়াও আত্মহত্যায় প্ররোচণাকারী ব্লু হোয়েল গেমসহ এ জাতীয় সব খেলা বন্ধে গেটওয়ের লিংক ও অ্যাপ বন্ধে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেছেন হুমায়ূন কবির পল্লব। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

পরে হুমায়ূন কবির পল্লব সাংবাদিকদের জানান, ছয়মাসের জন্য গেম লিংক বন্ধ ছাড়াও যারা এসব গেমে আসক্ত তাদের বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন তৈরি এবং আসক্তদের কাউন্সিলিং করতে একটি বিশেষজ্ঞ টিম গঠন করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত মোবাইল ফোন অপারেটরদের রাত্রিকালীন বিশেষ ইন্টারনেট অফার ছয় মাসের জন্য বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, রুলে ডেথ গেম হিসেবে পরিচিত ব্লু হোয়েল গেমসহ আত্মহত্যায় প্ররোচণাকারী এ জাতীয় সব গেমের গেটওয়ের লিংক ও অ্যাপ বন্ধে পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, বিপদজনক এসব গেম এবং সাইবার ক্রাইম থেকে জনগণকে রক্ষায় কেন গাইডলাইন করার নির্দেশনা দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, স্বরাষ্ট্র সচিব, শিক্ষা সচিব, সমাজ কল্যাণ সচিব, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, গ্রামীণ ফোন, রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক, টেলিটক, সিটিসেল কর্তৃপক্ষকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশে ব্লু হোয়েলসহ আত্মহত্যায় প্ররোচণাকারী এ জাতীয় সব গেমের সব লিংক ব্লক করে দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদনটি করেন সুপ্রিম কোর্টের তিনজন আইনজীবী। আইনজীবীরা হলেন- মোবাইলে ব্লু হোয়েলের মরণনেশার ফাঁদে পড়ে আত্মহত্যাকারী রাজধানীর হলিক্রস স্কুলের অষ্টম শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থী অপূর্ব বর্ধন স্বর্ণার (১৩) বাবা অ্যাডভোকেট সুব্রত বর্ধন এবং ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওসার ও ব্যারিস্টার নূর আলম সিদ্দিক রিট দায়ের করেন।সূত্রঃ বাংলাট্রিবিউন

Facebook Comments